Foto

আমি যে তাঁদের মনে ভাঙন ধরিয়েছি, তাই বা কম কিসে!


বন্ধুস্থানীয় ছেলেটির নাম শাওন। যে দুটো শব্দ শাওনের সাথে খুব যায় সেটি হল স্বাধীন ও দৃঢ়চেতা! ওর চোখে পৃথিবী দেখতে চাওয়া বা পারাটা কখনো কখনো সৌভাগ্যের মনে হয়! প্রচণ্ড কর্মঠ এই ছেলে পরিশ্রমের পাশাপাশি ভাগ্যেও পুরোপুরি বিশ্বাসী! এখানেই ছোট্ট একটু বিরোধ উঁকি দিলেও শাওনের বলিষ্ঠতার সামনে তা জায়গা হারায়...


Hostens.com - A home for your website

অনেক প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হওয়ার পরও এই ছেলের সরল স্বীকারোক্তি - "দেখো আমি সর্বোত্তম চেষ্টাই করেছি, পাইনি তাতে মানুষ হিসেবে আমার কষ্টের জায়গা তো রয়েছে। তা সত্ত্বেও বলতে চাই যা পেয়েছি এ পর্যন্ত তাও কি সবাই পেয়েছে? জীবন নামে যুদ্ধক্ষেত্রের এই প্রতিযোগিতায় কারো কারো পরিশ্রম হয়তো আমার চেয়েও অনেক বেশি, যেটি উপলব্ধি করার সুযোগ আমার হয়তো একেবারেই নেই! আবার ধরে নিতে পারো যিনি পেলেন তিনি হয়তো চতুরতার ছলে, সম্পর্কের জন্যেই কিছু পেলেন তাতেই বা কি আসে যায়? আমি যে তাঁদের ছোট্ট মনে একটু ভাঙন ধরিয়েছি, একটু ইনফেরিয়র কম্প্লিকেসি বাঁড়িয়ে দিয়েছি তাই বা কম কিসে!"

অনেক বড় বড় স্বপ্ন ভেঙে যাওয়ার পরও শাওনকে আমি বলতে শুনেছি, "শোনো কষ্ট পেয়ে লাভ নেই। আমি ধরে নিয়েছি এটা আমার ভাগ্যে ছিল না; আর এভাবে ভাবলে মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্বে জিতে যাওয়া যায়!" প্রত্যাশাকে সবসময় সংকুচিত করে ফেলতে পারা এই ছেলে আমার বিশাল অনুপ্রেরণার একটি অংশ।
ওর একটা কথা আমার ভীষণ প্রিয়- শোনো নানা প্রভাবকের আশ্রয় নিয়ে যদি তুমি জয়ীও হও সেটি নিয়ে মন থেকে গৌরব করার সুযোগ তুমি নিজেই তো হারিয়ে ফেলো! কোনো প্রভাবক ছাড়া স্বীয় যোগ্যতায় যখন তুমি কিছু অর্জন করো তাতে অদৃশ্য বিজয় তিলক সকলের কপালেই জুড়ে যায়!

বিদ্যমান বাস্তবতায় কিছু না পেলে সেটিকে মাড়িয়ে সামনে এগিয়ে চলাই শাওনের বৈশিষ্ট্য! স্থবির হতে শিখেনি সে। এই বৈশিষ্ট্য ধারণ করতে পারলে ব্যক্তি মানুষ সফল না হলেও, ভেঙে যাবেন না এতটুকু বিশ্বাস করতে খুব ইচ্ছে হয়...

লেখক: অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন), ওয়ারী বিভাগ, ডিএমপি, ঢাকা।(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

Facebook Comments