Foto

যে দুই অভিযোগে অভিশংসনের মুখে ট্রাম্প


মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে অভিশংসনের পর এবার উচ্চকক্ষ সিনেটেও অভিশংসনের ‍মুখে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টায় ট্রাম্পের অভিশংসনের বিচার শুরু হয়েছে। বিচারকের ভূমিকায় থাকায় ১০০ সিনেটর ট্রাম্পের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন।


Hostens.com - A home for your website

মূলত দুটি অভিযোগে ট্রাম্পের বিচার শুরু হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণ হলে অভিসংশনের শিকার তৃতীয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট হবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগের প্রথমটি হচ্ছে- মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইউক্রেনের সরকারের কাছে তাকে নভেম্বরে পুনঃনির্বাচিত হতে সাহায্য করতে সহায়তা চেয়েছেন।

দ্বিতীয় অভিযোগটি হচ্ছে, গত বছর অভিশংসন শুনানিতে হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তাদের সাক্ষ্য দিতে অসম্মতি জানান ট্রাম্প। এর মাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট কংগ্রেসের কাজে বাধা দেন।

প্রথমত, প্রেসিডেন্ট ইউক্রেনের সরকারের কাছে তাকে নভেম্বরে পুনঃনির্বাচিত হতে সাহায্য করতে সহায়তা চাইছে।

অভিযোগ রয়েছে যে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোডিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনালাপে ডেমোক্রেট দলের হোয়াইট হাউসের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিবিরোধী তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন ট্রাম্প। যার ছেলে হান্টার ইউক্রেনের জ্বালানী ফার্ম বুরিশমার একজন বোর্ড সদস্য। এই তদন্ত না হলে ট্রাম্প ইউক্রেনে সামরিক সহায়তা স্থগিত রাখার কথা বলেন।

গত বছর অভিশংসন শুনানিতে হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তাদের সাক্ষ্য দিতে অসম্মতি জানান ট্রাম্প। এর মাধ্যমে ট্রাম্প কংগ্রেসকে বাধা দেন।

গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর মার্কিন পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ কংগ্রেসে অভিশংসিত হন ট্রাম্প। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন এবং কংগ্রেসের কাজে বাধার সৃষ্টি করেছেন। এই দুটি অভিযোগ আনুষ্ঠানিকভাবে ১৬ জানুয়ারি সিনেটে দাখিল করা হয়।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ

Web Hosting and Linux/Windows VPS in USA, UK and Germany

Visitor Today : 57

Unique Visitor : 134652
Total PageView : 144674